ঢাকা, শুক্রবার ২০ মে ২০২২, ৬ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

একদিনে সারাদেশে পৌনে ২ লাখ লিটার মজুত করা তেল উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক: | প্রকাশের সময় : বুধবার ১১ মে ২০২২ ১১:১০:০০ অপরাহ্ন | জাতীয়

 

বুধবার (১১ মে) সারা দেশে এক লাখ ৮০ হাজার ৯৬৯ লিটার মজুত করা ভোজ্যতেল উদ্ধার করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের ৫৮টি টিম। এসব তেল উদ্ধার করে ন্যায্যমূল্যে বিক্রি করে দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা। তাছাড়া গত ১০ দিনে ১ লাখ ১৫ হাজার ৩২ লিটার ভোজ্যতেল উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। বাজার তদারকির পাশাপাশি ভোজ্যতেলের মজুতদারদের বিরুদ্ধে এই অভিযান চলমান থাকবে বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক (অর্থ ও প্রশাসন) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার। তিনি জানান, আজ থেকে প্রতিষ্ঠান সাময়িক বন্ধ করা শুরু হয়েছে। ভবিষ্যতে মামলাও করা হবে।

 

ঈদের প্রায় ১৫ দিন আগে থেকেই খুচরা বাজারে সয়াবিন তেলের সরবরাহ কমে যায়। তখন থেকেই সয়াবিন তেল পাচ্ছিল না ভোক্তারা। এমন পরিস্থিতির মধ্যে তেলের নতুন দাম কার্যকর হয়েছে। কিন্তু তারপরও বাজারে তেল পাওয়া যাচ্ছিল না। সারা দেশে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ মজুতকৃত তেল উদ্ধার করা হয়েছে।

 

 

অধিদফতর সূত্রে জানা যায়, গত ১ মে থেকে ৯ মে পর্যন্ত ৭ জেলায় অভিযান চালিয়ে ৬৯ হাজার ৮৪০ লিটার ভোজ্যতেল উদ্ধার করা হয়েছে। এরমধ্যে ঢাকায় ৩১ হাজার ৭৩০ লিটার, চট্টগ্রামে ১৬ হাজার ৫০ লিটার, কুমিল্লায় ছয় হাজার লিটার , দিনাজপুরে এক হাজার লিটার, নাটোরে ৩ হাজার ৬০০ লিটার, রংপুরে ১০ হাজার লিটার ও রাজশাহীতে এক হাজার লিটার ভোজ্যতেল উদ্ধার করা হয়।

 

 

গত ১০ মে ১৬টি জেলায় ৪৫ হাজার ১৯২ লিটার ভোজ্যতেল উদ্ধার করা হয়। এরমধ্যে যশোরে ১ হাজার ১৮ লিটার, নড়াইলে ৬০০ লিটার, সিলেটে ৫ হাজার লিটার, রংপুরে ১ হাজার ৩০০ লিটার, গাজীপুরে ৭ হাজার ১৫৮ লিটার, পাবনায় ১ হাজার ২৪৪ লিটার, সিরাজগঞ্জে সাড়ে ৪ হাজার লিটার, রাজশাহীতে ১৩২ লিটার, রাঙ্গামাটিতে ৩২০ লিটার, বরিশালে ৭০০ লিটার, ঝালকাঠিতে ১৫ হাজার লিটার, চাঁদপুরে সাড়ে ৭ হাজার লিটার, মৌলভীবাজারে ১০০ লিটার, মুন্সীগঞ্জে ৭০ লিটার, গোপালগঞ্জে ৩৫০ লিটার এবং মানিকগঞ্জে ২০০ লিটার ভোজ্যতেল উদ্ধার করা হয়।

 

বুধবার (১১ মে) গাজীপুর ও ঢাকা জেলার বিভিন্ন মার্কেটে অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে মজুতে রাখা ১২ হাজার ৮২২ লিটার ভোজ্যতেল উদ্ধার করেছেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের ঢাকা জেলার কর্মকর্তারা। এই অভিযান পরিচালনা করেন প্রতিষ্ঠানের সহকারী পরিচালক মো. আব্দুল জব্বার মণ্ডল ও মো. শরিফুল ইসলাম।  

 

রাজশাহী নগরীতে অভিযান চালিয়ে একটি গুদামে থেকে আরও ১১৪ ব্যারেলে থাকা ২৩ হাজার ২৫৮ লিটার ভোজ্যতেল উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের কর্মকর্তারা এই অভিযান চালান। অভিযানে নেতৃত্ব দেন সংস্থাটির রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক হাসান আল মারুফ।

 

সাতক্ষীরার রাজার এলাকার সাকার মোড়ের একটি ডিপার্টমেন্টাল স্টোর ও সুলতানপুর বড় বাজারে অভিযান চালিয়ে ৯৭৪ লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। সয়াবিন তেল মজুত রাখার অভিযোগে দুই প্রতিষ্ঠানের মালিককে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

 

মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলায় গুদামে সয়াবিন তেল মজুতের অপরাধে তিন প্রতিষ্ঠানকে এক লাখ ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বুধবার সকালে উপজেলার ঝিটকা বাজারে অভিযান চালিয়ে তাদের জরিমানা করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মানিকগঞ্জের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল।

 

প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক (অর্থ ও প্রশাসন) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার  বলেন, সারা দেশে এই অভিযান চলমান থাকবে। জরিমানার পাশাপাশি আমরা আজকে থেকে প্রতিষ্ঠান সাময়িক বন্ধ করে দিচ্ছি। আর এই মাসের শেষ দিকে আমরা মামলা করা শুরু করবো।