এই মাত্র পাওয়া :

ঢাকা, সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১

রাজনৈতিক লকডাউনে এডভোকেট মিসবাহ, থেমে নেই পথচলা

বিভাগ : ফিচার প্রকাশের সময় :২২ এপ্রিল, ২০২০ ৮:৫০ : অপরাহ্ণ

সিলেট ব্যুরো : রাজনৈতিকভাবে লকডাউন করা হয়েছে সিলেটের রাজনৈতিক মাঠের প্রতিবাদী কন্ঠস্বর আওয়ামী লীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিনকে সিরাজকে। কিন্তু তিনি নিজে লকডাউনে নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা বাস্তবায়নে সিলেটের মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। যেখানেই যাচ্ছেন, সেখানে করোনার সচেতনতা নিয়ে কথা বলছেন। অসহায় কর্মহীন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্যে সব মহলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছেন। প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছেন। দেশের চলমান পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলছেন। যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছেন স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মর্তাদের সাথে। সরকারের বিভিন্ন সেক্টরে যোগাযোগ করে প্রধানমন্ত্রীর দিক নির্দেশনা বাস্তবায়নে আন্তরিকভাবে কাজ করার অনুরোধ জানাচ্ছেন। কর্মহীন মানুষের পাশেও দাঁড়াচ্ছেন সাধ্যমত। অনেকটা নীরবে তাদের ঘরে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিচ্ছেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, করোনাভাইরাস বাংলাদেশে দেখা দেয়ার পর এডভোকেট মিসবাহ সক্রিয় হয়ে উঠেন। পরিস্থিতি সামাল দেয়ার জন্যে সিলেট বিভাগের আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের সাথে যোগাযোগ বাড়িয়ে দেন। করোনা বিস্তাররোধে সবাইকে নিজ নিজ অবস্থানে থেকে কাজ করার আহ্বান জানান। সিলেট বিভাগের প্রতিটি পৌরসভার মেয়র, উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন চেয়ারম্যানসহ জনপ্রতিনিধিদের সাথে যোগাযোগ করে প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনার নিদের্শনা বাস্তবায়নের আহ্বান জানান। সার্বক্ষণিক তিনি যোগাযোগ রক্ষা করে মানুষের পাশে থাকার আহ্বান জানাচ্ছেন। করোনা বিস্তাররোধসহ কর্মহীন মানুষের সহায়তায় কাজ করে যাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছেন। সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার, ডিআইজি, পুলিশ কমিশনার, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করে চলেছেন। সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলছেন। সিলেট নগরীর কয়েকটি ওয়ার্ডে কাউন্সিলরদের সাথে নিয়ে কর্মহীন মানুষের মধ্যে খাদ্য সহায়তা বিতরণ করছেন। যা আজো অব্যাহত আছে। ত্রাণ বিতরণে গিয়ে তিনি সাধারণ মানুষকে সচেতন করছেন। করোনা থেকে রক্ষা পেতে ঘরে থাকতে হবে-এমন প্রচারণা চালাচ্ছেন। মুক্তিযোদ্ধা, ব্যবসায়ী, সাংবাদিক, পেশাজীবীসহ বিভিন্ন শ্রেণির মানুষের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে সার্বিক পরিস্থিতিতে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানাচ্ছেন। করোনা সচেতনতার প্রচারণা চালাতে অনুরোধ করছেন। এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ ব্যক্তিগত উদ্যোগে সিলেট শহরতলির কান্দিগাঁও ইউনিয়নের শ্রীপুর, ইনাতাবাদ, পাইকারগাও ও অনন্তপুর গ্রামের খেটে খাওয়া মানুষের ঘরে খাদ্য সহায়াতা পৌঁছে দিয়েছেন। প্রায় ৭০০ পরিবারের ঘরে ঘরে নিজে খাবার পৌঁছে দিয়েছেন। এডভোকেট মিসবাহ ২০ এপ্রিল সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার পরিদর্শন করেন। সেখানে তিনি কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করেন। খোঁজ খবর নেন বন্দিদের। তিনি করাগারের কর্মকর্তাদের অনুরোধ জানান প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনার দিকনির্দেশনা মেনে চলার জন্যে। করোনা বিস্তার রোধে সকলকে সতর্ক হয়ে চলার আহ্বান জানান তিনি। করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বলতে গিয়ে এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ দৈনিক বায়ান্নকে বলেন, আমরা আল্লাহর সৃষ্টি মানবজাতি। এই মানবজাতিকে করোনাভাইরাস থেকে সৃষ্টিকর্তা রক্ষা করতে পারে। করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে আমাদেরকে মহান সৃষ্টি কর্তার কাছে ক্ষমা চাইতে হবে। তওবা করতে হবে। অনুকম্পা চাইতে হবে। মহান আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে ক্ষমা করতে পারেন। এডভোকেট মিসবাহ বলেন, ২-৩ দিন পর শুরু হবে রমজান মাস। এই রমজান মাস মুসলমানদের জন্যে এবাদত বন্দেগির মাস। কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারণে মসজিদে গিয়ে এবাদত বন্দেগি করা যাবে না। এই অবস্থা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্যে আমাদের সবাইকে মহান আল্লাহর দরবারে ক্ষমা চাইতে হবে। তিনিই করোনাভাইরাস থেকে আমাদেরকে মুক্তি দিতে পারেন। খুলে দিতে পারেন মসজিদ। সকলের প্রতি অনুরোধ রেখে এডভোকেট মিসবাহ বলেন ‘দুই হাত তুলে আল্লাহর কাছে ক্ষমা চেয়ে করোনা থেকে মুক্তি পাওয়ার প্রার্থনা করতে হবে আমাদেরকে‘।

Print Friendly and PDF

ফেইসবুকে আমরা