ঢাকা, বুধবার ৫ অক্টোবর ২০২২, ১৯শে আশ্বিন ১৪২৯

চাঁচুড়ী-পুরুলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদ নির্বাচনে এমপির প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ

নড়াইল প্রতিনিধি | প্রকাশের সময় : বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১২:১৭:০০ অপরাহ্ন | জাতীয়

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার চাঁচুড়ী-পুরুলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদ নির্বাচনে সভাপতি পদে সুষ্ঠু পরিবেশে ভোটের নিশ্চয়তা চান ভোটার ও প্রার্থীরা ! আজ বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টার দিকে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম। এর আগে গত ২১ আগস্ট অনুষ্ঠিত বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ নির্বাচনে সদস্য পদে চারজন প্রার্থী বিজয়ী হন এবং এক নারী সদস্য বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। এছাড়া শিক্ষক প্রতিনিধি ও বিদ্যুৎসাহী সদস্যসহ মোট নয়জন ভোটার বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি নির্বাচিত করবেন।

বর্তমানে নড়াইল-১ আসনের সংসদ সদস্য কবিরুল হক মুক্তির সভাপতি পদের মেয়াদ শেষ হয়েছে। এবারও সভাপতি পদে এমপি মুক্তির নাম অনুমোদনের জন্য পাঠালে তা বাতিল করে দেয় যশোর শিক্ষা বোর্ড। কারণ, তিনি আরও দু’টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সভাপতি বিধায় নিয়মানুযায়ী তা বাতিল করেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। তবে, এমপির প্রভাব খাটিয়ে তার স্ত্রী চন্দনা হককে সভাপতি হিসেবে মনোনীত করতে একটি পক্ষ উঠেপড়ে লেগেছে বলে কয়েকজন ভোটারসহ বিভিন্ন পেশার মানুষ জানিয়েছেন।

এদিকে, এলাকার সুধীজনসহ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের নবনির্বাচিত সদস্যদের একাংশ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ধাড়িয়াঘাটা গ্রামের ফসিয়ার রহমান মোল্যাকে সভাপতি হিসেবে দেখতে চান। এ নিয়ে দুইপক্ষের মধ্যে কথা ছোড়াছুড়ি চলছে। এমনকি এমপির স্ত্রীকে সভাপতি করতে মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় চাঁচুড়ী-পুরুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।  

এ ব্যাপারে সভাপতি প্রার্থী ফসিয়ার রহমান মোল্যা বলেন, আমার প্রতিপক্ষরা নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে বিভিন্ন ধরণের হুমকি দিচ্ছে। বিদ্যালয়ে নির্বাচন হলে সুষ্ঠু ভোট হবে কিনা সন্দেহ রয়েছে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকও একটি পক্ষকে সমর্থন করছেন। এক্ষেত্রে বিদ্যালয় চত্বর বাদে জেলা শহরে নির্বাচনের দাবি জানাচ্ছি। এ ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
 
চাঁচুড়ী-পুরুলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম বলেন, এখানে আমার পছন্দ বা অপছন্দের কোনো প্রার্থী নেই। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে নড়াইল-১ আসনের সংসদ সদস্য কবিরুল হক মুক্তি বলেন, সভাপতি পদে আমার স্ত্রীর প্রার্থীতার ব্যাপারে আমার আগ্রহ নেই। তবে ভোটারসহ এলাকাবাসী চায়লে, সেটি তাদের আগ্রহের বিষয়। এক্ষেত্রে ভোটাররা যাকে পছন্দ করবেন, তাকেই সভাপতি নির্বাচিত করবেন। এখানে আমার প্রভাব বিস্তারের কিছুই নেই। #