ঢাকা, শুক্রবার ১২ অগাস্ট ২০২২, ২৮শে শ্রাবণ ১৪২৯

দাপুটে জয়ে ঘুরে দাঁড়ালো সোহানের বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : রবিবার ৩১ জুলাই ২০২২ ০৮:৩২:০০ অপরাহ্ন | খেলাধুলা

বোলাররাই অর্ধেক কাজ করে রেখেছিলেন। বাকি দায়িত্বটা সহজেই সারলেন ব্যাটাররা। দাপুটে জয়ে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে সমতায় ফিরলো নুরুল হাসান সোহানের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ দল। হারারেতে আজ দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে জিম্বাবুয়েকে ১৫ বল আর ৭ উইকেট হাতে রেখে হেসেখেলেই হারিয়েছে টাইগাররা।

 

বাংলাদেশের জয়ের লক্ষ্য ছিল মোটে ১৩৬ রানের। ব্যাটারদের ওপর তাই এবার তেমন চাপ ছিল না। তারপরও সুবিধা করতে পারলেন না মুনিম শাহরিয়ার। আরও একবার ব্যর্থ হয়ে ফিরলেন।

 

লিটন দাস ওপেনিংয়ে ঝড়ো সূচনা করেন। ফলে ২৭ বলে ৩৭ রানের জুটি এসেছে। কিন্তু মুনিম ৭ বলে ৭ রান করেই বোল্ড হয়েছেন রিচার্ড এনগারাভার বলে। আগের ম্যাচে মুনিম করেছিলেন ২ রান।

 

সঙ্গী হারালেও লিটন খেলেছেন নিজের মতো। বাংলাদেশ দলে অন্যতম ধারাবাহিকতার প্রতীক হয়ে ওঠা এই ব্যাটার ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ টি-টোয়েন্টি ফিফটি তুলে নেন মাত্র ৩০ বলে। এগিয়ে যাচ্ছিলেন বেশ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে।

 

কিন্তু শন উইলিয়ামসকে সুইপ করতে গিয়ে লিটন ভুল করে বসলেন, পড়লেন এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে। ৩৩ বলে ৬ চার আর ২ ছক্কায় গড়া লিটনের ইনিংসটি ছিল ৫৬ রানের।

 

এর তিন বল পর আরও একটি উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ। এবার এনামুল হক বিজয় (১৫ বলে ১৬) হন সিকান্দার রাজার শিকার। ক্রস খেলতে গিয়ে টপ এজ হয়ে ডানহাতি এই ব্যাটার ধরা পড়েন ব্যাকওয়ার্ড স্কয়ারে। ৮১ রানে ৩ উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

 

তবে এরপর আর দলকে কোনো বিপদে পড়তে দেননি নাজমুল হোসেন শান্ত আর আফিফ হোসেন। চতুর্থ উইকেটে ৪৮ বলে ৫৫ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন তারা। আফিফ ২৮ বলে ৩০ আর ২১ বলে ১৯ রানে অপরাজিত থাকেন।

 

এর আগে মোসাদ্দেক হোসেনের বিধ্বংসী বোলিংয়ের পরও জিম্বাবুয়েকে অলআউট করতে পারেনি বাংলাদেশ। সিকান্দার রাজার ৫৩ বলে ৬২ রানের ইনিংসে ভর করে ৮ উইকেটে ১৩৫ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় জিম্বাবুয়ে।

 

মোসাদ্দেক হোসেন টানা ৪ ওভার বোলিং করে ফেলেন। ২০ রান দিয়ে উইকেট নেন ৫টি। জিম্বাবুয়ের হয়ে একাই লড়াই করলেন সিকান্দার রাজা। ৫৩ বলে ৬২ রান করেন তিনি। আগের ম্যাচে ২৬ বলে করেছিলেন অপরাজিত ৬৫ রান।

 

প্রথম ম্যাচে ১৭ রানে হার। জিম্বাবুয়ের কাছে এই পরাজয়ের পর অনেক সমালোচনা শুনতে হয়েছে অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান এবং টিম ম্যানেজমেন্টকে। সবচেয়ে বেশি আলোচনা হয়েছে, একাদশ বাছাই করা নিয়ে।

 

টানা দ্বিতীয় দিনে দ্বিতীয় ম্যাচ। এবার দুটি পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নেমেছে নুরুল হাসান সোহানের বাংলাদেশ। যথারীতি ৩ পেসার। তাসকিন আহমেদকে বাদ দিয়ে নামানো হয় হাসান মাহমুদকে। নাসুম আহমেদকে বাদ দিয়ে নেয়া হয়েছে স্পিনার শেখ মেহেদি হাসানকে।

 

দ্বিতীয় ম্যাচেও টস হার এবং প্রথমে ফিল্ডিং। তবে অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান এবার আর পেসার দিয়ে আক্রমণ শুরু করেননি না। নিয়ে আসলেন স্পিনার। তাও নিয়মিত স্পিনার শেখ মেহেদি নয়, মোসাদ্দেকের হাতে তুলে দিলেন বল।

 

বল হাতে নিয়েই জিম্বাবুইয়ানদের ওপর চড়াও হলেন মোসাদ্দেক। তার করা প্রথম ওভারেই দুই ব্যাটারকে হারায় জিম্বাবুয়ে। ইনিংসের প্রথম বলেই ওপেনার রেগিস চাকাভাকে নুরুল হাসান সোহানের হাতে ক্যাচ দিতে বাধ্য করেন মোসাদ্দেক।