ঢাকা, মঙ্গলবার ৫ মার্চ ২০২৪, ২২শে ফাল্গুন ১৪৩০

শেষ হলো ডিসি পার্কে দুইদিনের উদযাপিত মাল্টি কালচারাল ফেস্টিভ্যাল

নিজস্ব প্রতিবেদক : | প্রকাশের সময় : সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ০৮:১০:০০ অপরাহ্ন | চট্টগ্রাম প্রতিদিন
হাজারো ফুল সৌরভ ছড়াচ্ছে চট্টগ্রামে সাগরপাড়ে ফৌজদারহাট ডিসি পার্কে। দ্বিতীবারের মতো আয়োজিত মাস ব্যাপী মনজুড়ানো বর্ণিল ফুল উৎসব সৌন্দর্য ও প্রকৃতিপ্রেমীর আকর্ষণে পরিণত হয়েছে। একসময় মাদকের আখড়ায় পরিণত হওয়া এই পার্ক চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের প্রচেষ্টায় চট্টগ্রাম বাসীর নির্মল পরিবেশ ও স্বস্থির বিনোদন কেন্দ্র পরিণত হয়েছে। বিস্তীর্ণ জলরাশি আর তার পাড় ঘেঁষেই ফুলের সাম্রাজ্য। পার্কে টিউলিপ ফুল থেকে শুরু করে দেশীয় গাঁদা, লাল, নীল, হলুদ বর্ণের ডালিয়া ছাড়াও আছে নানা বর্ণের মেরিগোল্ড, চন্দ্রমল্লিকার মতো রঙ-বেরঙের প্রায় ১২০ প্রজাতির অসংখ্য ফুল স্থান পেয়েছে। 
জেলা প্রশাসন, চট্টগ্রাম এর উদ্যোগে সরকারিভাবে জেলা পর্যায়ে দেশে প্রথমবারের মতো Asian University For Women, Indira Gandhi Cultural Centre, Alliance Française de Chittagong  এর সহযোগিতায় উদযাপিত হতে যাচ্ছে Multicultural Festival 2024। বাংলাদেশসহ ১৬টি দেশ তাদের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি তুলে ধরবে এই ফেস্টিভ্যালে। 
২ দিন ব্যাপি বর্ণিল এই ফুল উৎসবের ১ম দিনে ১০ ফেব্রুয়ারি শনিবারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে  উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব ড. হাছান মাহমুদ এমপি মহোদয়। এই সময় পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি মহোদয় পুরো পার্ক ও বোট এক্সিবিশন ঘুরে ঘুরে দেখেন। এরপর তিনি বিকাল ৫ ঘটিকায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে বিদেশী স্টল সমূহ পরিদর্শন করেন। বক্তব্যকালে তিনি চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের সম্মানিত জেলা প্রশাসকের এই ধরণের সাহসী পদক্ষেপের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি বলেন চট্টগ্রামে প্রায় ২০০ একর মাদকের অভয়ারণ্য খ্যাত জায়গায় এই ধরনের ফুলের পার্ক এবং ফুল উৎসব চট্টগ্রাম বাসীর জন্য এক বিরাট উপহার এবং এই ডিসি পার্ক ও ফুল উৎসবে প্রতিদিন প্রায় অর্ধলক্ষ মানুষের জনসমাগম এর গ্রহণযোগ্যতা কতটুকৃ তা প্রকাশ করে এবং চট্টগ্রামবাসীর পক্ষ থেকে তিনি চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। এছাড়াও এর ধারাবাহিকতায় রক্ষায় চট্টগ্রামবাসীসহ সর্বস্তরের জনসাধারনকে এগিয়ে আসা ও এই ধরনের আরো উৎসব আড়ম্বরের সহিত আয়োজনের জন্য সকলের আহবান জানান। পাশাপাশি বিশেষ অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব মাহবুবুল আলম, প্রেসিডেন্ট, এফবিসিসি, জনাব ড. রাজীব রন্জন, এসিট্যান্ট  হাই কমিশনার অব ইন্ডিয়া। এই সময় তিনি বলেন দুই দেশের মধ্যে যে সামাজিক মেলবন্ধন তা অনুষ্ঠিত Multicultural programe এর মাধ্যমে প্রকাশ পেয়েছে এবং পরবর্তীতে তা গ্লোবাল ভিলেজ এর মত সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়বে বলে এবং এর নির্ঝাস পাব বলে আমারে একান্ত বিশ্বাস। এরপর সন্ধায় ২ ঘন্টাব্যাপী মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। 
Multicultural Festival 2024 এর ২য় দিনে ১১ ফেব্রুয়ারি রবিবারে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব  জনাব খায়রুল আলম শেখ। তিনি পুরো আয়োজনের অত্যান্ত  প্রশংসা করেন। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা জেলার জেলা প্রশাসক জনাব খন্দকার মু: মুশফিকুর রহমান।
চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক জনাব মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান বলেন, ঋতুভিত্তিক উৎসবগুলো বাঙালির সাংস্কৃতিক চর্চাকে বিকশিত করার পাশাপাশি প্রকৃতির বিষয়েও সচেতন করে। চিরায়ত বাংলার ঐতিহ্যকে উপজীব্য করেই সাজানো হয়েছে অনুষঙ্গগুলো। জনসাধারণের অংশগ্রহণ এই ফুল উৎসবকে আরো প্রাণবন্ত ও মুখরিত করে তুলবে।
মাসব্যাপী এই ফুল উৎসবে ১০ ফেব্রুয়ারি শনিবার সকাল থেকেই সরব ছিল উৎসব প্রাঙ্গন। সকাল থেকেই নিয়মিত অনুষ্ঠান সূচীর পাশাপাশি চোখ জুড়ানো চিত্রকলা প্রদশর্নী, শত বছরের নৌকা প্রদশর্নী, সাম্পান প্রতিযোগিতা, মন জুড়ানো  ভায়োলিন শো, ঘুড়ি উৎসব, পাপেট শো, বাঙালি পিঠা উৎসব, বইমেলা ইত্যাদি এই ফুল উৎসবের আকর্ষন আরো বাড়িয়ে তুলেছে। ফুলের সুবাসে সড়কের চিত্রই যেন ভিন্ন রুপে পাল্টে গেছে। সড়কে এখন হরেক রকমের ফুলের সমাহার । উল্লেখ্য, সম্প্রতি শুরু হওয়া ফুল উৎসব চলবে ২৩ শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪ পর্যন্ত।