ঢাকা, বুধবার ৫ অক্টোবর ২০২২, ১৯শে আশ্বিন ১৪২৯

শেখ হাসিনা ছাড়া পার্বত্য এলাকার উন্নয়ন সম্ভব নয় - পার্বত্য মন্ত্রী

থানচি (বান্দরবান) প্রতিনিধি, | প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৬:৪৮:০০ পূর্বাহ্ন | চট্টগ্রাম প্রতিদিন
 
 
যতদিন শেখ হাসিনা সরকার থাকবে, ততদিন দেশের উন্নয়ন হবে, তথা পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন হবে। কাজেই শেখ হাসিনা ছাড়া পার্বত্য এলাকার উন্নয়ন সম্ভব নয়।
 
বুধবার (২১/৯/২০২২) দুপুরে বান্দরবানের থানচি রেমাক্রি বাজার প্রাঙ্গনে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রত্যন্ত এলাকায় সোলার প্যানেল স্থাপনের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ প্রকল্প-২য় পর্যায় শীর্ষক প্রকল্পের উপকারভোগীদের সোলার হোম সিস্টেম বিতরণ কালে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি এই কথা বলেন।
 
 মন্ত্রীর আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের আগেও দেশের এমপি, মন্ত্রীর ও প্রধান মন্ত্রীর ছিলেন। তাঁরা কখনো এই এলাকার মানুষের কথা চিন্তা করে না, কেমন আছেন কিভাবে আছেন, কোনদিন ভাবেননি। তাই তো তাঁরা এসব এলাকায় কোনদিন আসেননি। কিন্তু আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে দেশের প্রধানমন্ত্রী এই এলাকায় এসেছেন। আমি এমপি হয়ে এই এলাকার অনেকবার এসেছি। এবার মন্ত্রীর হয়ে আপনাদের সুখ-দুঃখ দেখতে কাছে এলাম। থানচি'র বিদ্যুৎ বিহীন তিন্দু ও রেমাক্রি ইউনিয়নের সবাইকেই সোলার হোম সিস্টেম দেয়া হবে। কেউই অন্ধকারে থাকবে না, সোলার হোম সিস্টেম মাধ্যমে প্রতিটি ঘরে পৌঁছে দেয়া হবে বিদ্যুৎ সরবরাহ।
 
থানচি'র বিদ্যুৎ বিহীন রেমাক্রি ইউনিয়নের ১৩'শ পরিবারের মাঝে ১'শ ওয়ার্ড উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন সোলার হোম সিস্টেম বিতরণ করা হয়। একই সাথে ইউনিয়নের প্রশিক্ষণ প্রাপ্তদের মধ্যে সেলাই মেশিন, গরীব অসহায় কৃষকদের মাঝে স্প্রে মেশিন, দুঃস্থ মহিলাদের ছাগল, ভিজিডি মহিলাদের চাল, দরিদ্র অসহায়দের মশারী বিতরণ করা হয়েছে।
 
এসময় উপস্থিত ছিলেন, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম (পিপিএম), পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের উপসচিব (সদস্য বাস্তবায়ন) মোঃ হারুন উর রশিদ, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ক্যসাপ্রু মারমা, বান্দরবান পৌর কমিশনার অজিত কান্তি দাশ, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান থোয়াইহ্লামং মারমা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাঃ আবুল মনসুর, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য সিংইয়ং ম্রো, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক টিংটিংম্যা মারমা ও পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাবৃন্দ, জেলা পরিষদের ইঞ্জিনিয়ারগণ সহ অনুষ্ঠান উপস্থাপনা দায়িত্বে ছিলেন রেমাক্রি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুইশৈথুই মারমা।